ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে ইরি-বোরো বাম্পার ফলন ধান কাটা নিয়ে বিপাকে কৃষক

Date:

Share post:

শিপলু জামান, ঝিনাইদহ:
ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে সোনালী মাঠে মাঠে শুরু হয়েছে আগাম জাতের ইরি-বোরো ধান কাটার মৌসুম। একদিকে এলো মেলো বাতাসে যেমন দুলছে ধানের শীষ অন্য দিকে বাতাসের তালে তালে কৃষকের অন্তরে দোল খাচ্ছে দু’চোখ ভরা স্বপ্ন।

বর্তমানে আবহাওয়া ভালো থাকায় ইতিমধ্যই উপজেলার মাঠে শুরু হয়েছে প্রধান ফসল আগাম জাতের ইরি-বোরো ধান কাটার কাজ কৃষক রিপন হোসেন বলেন, ধানের ফলন ভাল রয়েছে। কিন্তু ধান কাটার জন্য মজুরিদের পাওয়া যাচ্ছে না। অন্যবার কালীগঞ্জ শহরের কামলার হাট বসে কিন্তু কামলাদের হাট বসছে না। ফলে কৃষকরা ধান কাটা নিয়ে পড়ছে মহা সমস্যায়। ধানকাটার মুজুরিরা পেশা পরিবর্তন করে অন্য পেশার দিকে ঝুকে পড়ছে । যার ফলে কুষ্ঠিয়া, ফরিদপুর, মেহেরপুর থেকে ধানকাটা মুজুরি সংগ্রহ করতে হচ্ছে চাষীদের ।
আবহাওয়া যদি ভালো থাকে ও কোন প্রকারের প্রাকৃতিক দূর্যোগ হানা না দিলে এবার ধানের বাম্পার ফলন পাওয়ার আশা করছেন উপজেলার কৃষকরা ও কৃষি কর্মকর্তারা।

কালীগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিস জানায়, চলতি ইরি-বোরো মৌসুমে উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে ১৮ হাজার ৬০ হেক্টর জমিতে ইরি-বোরো ধান রোপনের লমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছিল। সেখানে রোপন হয়েছে ১৪ হাজার ৫৭০ হেক্টর জমিতে। মৌসুমের শুরু থেকেই আবহাওয়া ও প্রকৃতি ধান চাষের অনুকুলে থাকায় মাঠে তেমন কোন রোগ বালাইয়ের আক্রমণ দেখা যায়নি। সম্প্রতি কয়েকবার প্রাকৃতিক দুর্যোগ হানা দিলেও ধানের তেমন কোন তি হয়নি। বর্তমানে উপজেলার মাঠে বিভিন্ন জাতের ধান কাটা শুরু করেছে কৃষকরা। শেষ পর্যন্ত আবহাওয়া ভালো থাকলে, শিলাবৃষ্টি না হলে, কোন প্রকারের প্রাকৃতিক দুর্যোগ হানা না দিলে এবং কৃষকরা মাঠের ধান ভালো ভাবে ঘরে তুলতে পারেন তাহলে কৃষকরা এবার বাড়িতে ধান রাখার জায়গা পাবেন না বলে আশা করছেন কৃষি অফিস। বিগত সময়ের চাইতে এবার ধানের রেকর্ড পরিমান ফলন হবে। শেষ পর্যন্ত ধানের বাজার ভালো থাকলে কৃষকরা বিগত সময়ের লোকসান কাটিয়ে লাভবান হতে পারবেন।

ফয়লা গ্রামের মহিদুর ইসলাম বলেন, বিগত সময়ের তুলনায় এবার ধানে পোকা-মাকড় ও রোগ বালাইয়ের আক্রমণ অনেক কম হয়েছে। ধান ঘরে তোলার আগ পর্যন্ত যদি আবহাওয়া ভালো থাকে এবং কোন প্রকারের প্রাকৃতিক দুর্যোগ হানা না দেয় তাহলে বিগত সময়ের তুলনায় কালীগঞ্জ উপজেলার কৃষকরা চলতি ইরি-বোরো মৌসুমে রেকর্ড পরিমাণ ধানের ফলন পাবে। ফলন বাম্পার পাওয়ার পর যদি ধানের বাজার ঠিক থাকে তাহলে বিগত সময়ে ধান চাষে তিগ্রস্থ’ কৃষকরা লোকশান পুষিয়ে নিয়ে অনেকটাই লাভবান হবেন বলে আমরা আশাবাদী।উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ জাহিদুল ইসলাম বলেন এখন পর্যন্ত আবহাওয়া ও প্রকৃতি ধানের পে রয়েছে। শেষ পর্যন্ত আবহাওয়া ও প্রকৃতি যদি ধানের অনুকুলে থাকে এবং কৃষকরা ভালো ভাবে ধানগুলো ঘরে তুলতে পারেন তাহলে কৃষকরা সকল প্রকার ধানের প্রচুর ফলন পাবেন যা কৃষকের বাড়িতে রাখার জায়গা হবে না। কৃষকরা বলছে এবার ফলন ৩০ থেকে ৩৫ মণ হারে পাওয়ার আশা করছি। আর ক’দিনের মধ্যেই উপজেলায় পুরোদমে শুরু হবে ধান কাটার মৌসুম। শেষ পর্যন্ত ধানের বাজার ঠিকঠাক থাকলে কৃষকরা চলতি ইরি-বোরো মৌসুমের ধান বিক্রি করে লাভবান হবে।

কালীগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার জাহিদুল করিম বলেন, এবার মাঠে ১৪ হাজার ৫৭০ হেক্টর জমিতে ধান রোপন রয়েছে। তন্মধ্যে ইরি ৫০ ও ৬৩,ইরি ২৮.স্বর্না,সুবলতাসহ বিভিন্ন জাতের ধান রয়েছে। কালীগঞ্জ উপজেলায় ১১ টি ইউনিয়নের মধ্যে ১৯৮ টি গ্রাম রয়েছে,মৌজা রয়েছে ১৮৮ টি। এ ছাড়া কৃষি অফিসের হিসাব মোতাবেক মোট আবাদি জমি রয়েছে ২২ হাজার ৩১২ হেক্টর জমি। নিট ফসলি জমি রয়েছে ৪৯ হাজার ৯৮০ হেক্টর জমি। মোট ফসলি জমি রয়েছে ৩২ হাজার ৩১২ হেক্টর জমি। এ উপজেলায় কৃষকের সংখ্যা রয়েছে প্রায় ৩০ হাজার ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

spot_img

Related articles

ভালুকায় কাভার্ডভ্যান উল্টে ২জন নিহত

কাভার্ড ভ্যান উল্টে নিহত, ভালুকা, ময়মনসিংহ

ভালুকায় পিকাপ গাড়ীসহ চোর চক্রের ৫ সদস্য আটক 

আফরোজা আক্তার জবা, ভালুকা প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের ভালুকায় ২টি চোরাই পিকাপ গাড়ীসহ চক্রের ৫ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।...

ভালুকায় ধান ক্ষেত থেকে গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার

আফরোজা আক্তার জবা ভালুকা প্রতিনিধিঃময়মনসিংহের ভালুকায় হাজেরা খাতুন(৩৫) নামে এক গৃহবধূর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে ভালুকা মডেল থানা...

ভালুকায় পথচারীদের মাঝে পানি ও স্যালাইন বিতরণ

আফরোজা আক্তার জবা, ভালুকা প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের ভালুকায় প্রচন্ড তাপদাহে মানুষের তৃষ্ণা মেটাতে পথচারীদের মাঝে বিশুদ্ধ পানি ও খাবার...